Latest News :
২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে ডিগ্রি (পাস) ১ম বর্ষে ১ম মেধা তালিকায় ভর্তিকৃত ছাত্রীদের বিভাগ পরিবর্তন সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি (০১/১২/২০২২) || ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে ডিগ্রি (পাস) ১ম বর্ষে ২য় মেধা তালিকায় ভর্তি বিজ্ঞপ্তি (০১/১২/২০২২) || ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণীর বার্ষিক পরীক্ষার পূর্ণাঙ্গ ফলাফল (৩০/১১/২০২২) || ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণীর বার্ষিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রীদের দ্বাদশ শ্রেণীতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ (৩০/১১/২০২২) || ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি (৩০/১১/২০২২) || ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষের ডিগ্রী (পাস) ৩য় বর্ষের দর্শন বিষয়ের ৫ম ও ৬ষ্ঠ পত্রের ইনকোর্স পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ (৩০.১১.২০২২) || ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষের ডিগ্রী (পাস) ৩য় বর্ষের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিষয়ের ৫ম ও ৬ষ্ঠ পত্রের ইনকোর্স পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ (২৮.১১.২০২২) || মহান বিজয় দিবস-২০২২ উদযাপন উপলক্ষে বিভিন্ন প্রতিযোগিতার বিজ্ঞপ্তি (২৯/১১/২০২২) || উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষা -২০২২ এর ব্যবহারিক পরীক্ষার গ্রুপ তালিকা ও সময়সূচীর সংশোধিত বিজ্ঞপ্তি (২৮/১১/২০২২) || উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা -২০২২ এর ২৯/১১/২০২২ ও ০১/১২/২০২২ তারিখের পরীক্ষার আসনবিন্যাস (২৮/১১/২০২২) ||

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী কর্নার

বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও বিজয় অর্জনের ৫০ বছর পূর্তি
সুবর্ণজয়ন্তী কর্নার

Latest Notice

About College


বৃহত্তর চট্টগ্রামের নারী শিক্ষা প্রসার বিশেষত রক্ষণশীল পরিবারের মেয়েদের আধুনিক শিক্ষার পথ সুগম করার মহান ব্রতে তৎকালীন চট্টগ্রামের কয়েকজন শিক্ষানুরাগী ও সমাজ সেবকের নিরন্তর প্রচেষ্টায় ১৯৫৭ সালের ১ জুলাই থেকে চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ তার শুভ যাত্রা শুরু করে। কলেজটির প্রথম একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম শুরু হয়েছিল আন্দরকিল্লা শাহী জামে মসজিদ সংলগ্ন ভিক্টোরিয়া ইসলামিক হোস্টেল ভবনে। প্রতিষ্ঠা লগ্নে কলেজের ছাত্রী সংখ্যা ছিল ১৫০ জন এবং অধ্যাপক অধ্যাপিকা ছিলেন মাত্র ৮ জন। প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপকবৃন্দ প্রায় সকলেই বিনা সম্মানীতে কলেজে পাঠদান করতেন। তাদের এ মিশনে যিনি নেতৃত্ব দান করেছিলেন তিনি হলেন প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ শ্রী যোগেশ চন্দ্র সিংহ। সূচনাপর্বে কলেজটির নাম ছিল চিটাগাং ঊইমেন্স কলেজ। ছাত্রীদের আবেদনের প্রেক্ষিতে পরবর্তীতে চিটাগাং গার্লস কলেজ নামকরণ হয়। ১৯৬৮ সালে প্রাদেশিকীকরণের পর নাম হয় Chittagong  Govt. Girl’s College এবং স্বাধীনতার পরে এ’টি চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ নামে পরিচিতি লাভ করে। ১৯৬০-৬৮ সালে কলেজ জাতীয়করণের সময় পর্যন্ত এ কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন অধ্যক্ষ মিস ফেরদৌস আরা সাবেত। চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ প্রায় ছয় দশক ধরে এ অঞ্চলে শিক্ষা ও প্রগতির দ্যুতি ছড়িয়ে চলছে। ১৯৬০ সালে চট্টলার কৃতি সন্তান জনাব বাদশা মিঞা চৌধুরীসহ আরো কয়েকজন শুভ ঊদ্যোগী মানুষের প্রচেষ্টায় তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের গভর্ণর জাকির হোসেন চৌধুরী খুলশী পাহাড়ে কলেজের জন্য প্রায় বিনা মূল্যে বিশ একর জমি প্রাপ্তির ব্যবস্থা করেন। ১৯৬১/১৯৬২ সালে চট্টগ্রামের নৈসর্গিক সৌন্দর্যমন্ডিত অভিজাত এলাকা খুলশীতে কলেজটি স্থানান্তরিত হয়। ১৯৬৪ সালে নির্মিত হয় বর্তমান প্রশাসনিক ও একাডেমিক দু’তলা ভবনটি। ১৯৭৫ সালে দু’তলা ভবনের পশ্চিম পাশে আরেকটি দু’তলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হয়। ১৯৮৬ ও ১৯৯০ সালে দু’দফা সরকারি অনুদানে ছাত্রী হোস্টেল ও সীমানা প্রাচীর নির্মিত হয়। ১৯৯১ সালে আরেক দফা  সরকারি অনুদানে ঘূর্ণিঝড় বিধ্বস্ত কলেজটির বিভিন্ন ভবন সংস্কার করা হয় এবং সীমানা প্রাচীর নির্মাণ কাজ সমাপ্ত করা হয়। ১৯৯২ সালে কলেজটি সরকারি বিজ্ঞান প্রকল্পের আওতাভুক্ত হয়। ২০০৬-০৭ শিক্ষাবর্ষ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিতে ব্যবসায় শিক্ষা চালু হয়। এ ভাবে প্রচেষ্টা ও উন্নয়নের সোনালী স্পর্শে মহীয়ান হয়ে চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ বাংলা দেশের অন্যতম সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রূপ লাভ করে। শিক্ষার পরিবেশ, মান, শৃংখলা ও ফলাফল বিচারে চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক A ক্যাটাগরী কলেজের স্বীকৃতি লাভ করেছে। নিবেদিত প্রাণ শিক্ষক-কর্মচারী ও এক ঝাঁক মেধাবী ছাত্রীর সম্মিলিত প্রয়াসে আশা করা যায় কলেজটির উন্নয়ন যাত্রা অব্যাহত থাকবে। 

Read More->

Result Search

Class
Department/Section/Group
Session
Exam

Principal Message

প্রফেসর তাহমিনা আক্তার নূর ১৯৬৬ খ্রিঃ ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার সীমান্তবর্তী কসবা থানার হাজীপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা, সমাজসেবক, শিক্ষানুরাগী প্রকৌশলী এম.এ. নূর ও মাতা রওশন আরা নূর। তিনি নরসিংদী সরকারি বালিকা বিদ্যালয় থেকে ১৯৮১ সালে ১ম বিভাগ এস, এস, সি এবং কিশোরগঞ্জ মহিলা কলেজ থেকে এইচ, এস, সি পাশ করেন ১৯৮৩ সালে। তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি ১৪’ বি, সি, এস পরীক্ষার মাধ্যমে চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজে তাঁর চাকুরী জীবন শুরু করেন ১৯৯৩ সালে। বিভিন্ন সময়ে তিনি সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ ও চাঁদপুর সরকারি কলেজে বিভাগীয় প্রধান (বাংলা) হিসাবে দায়িত্বরত ছিলেন। তিনি ২০১৫ খ্রিঃ চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজে উপাধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেন। ২০২১ সালের আগষ্ট মাসের ৯ তারিখে তিনি চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ হিসাবে যোগদান করেন।

Read More->

Vice-Principal Message

প্রফেসর সালমা রহমান ১৯৬৪ খ্রিস্টাব্দে কুষ্টিয়া জেলার খোকসা উপজেলায় এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সমাজসেবক মরহুম হাফিজুর রহমান এবং মাতা মনোয়ারা বেগম। তিনি চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ থেকে এইচ এস সি এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে সম্মানসহ স্নাতক স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। ১৯৮৮ সালে খাজা আজমেরি কেজি এন্ড হাই স্কুলে সহকারী শিক্ষক পদে যোগদানের মাধ্যমে তাঁর কর্মজীবন শুরু হয়। ১৯৯০ সালে একই প্রতিষ্ঠানে তিনি অধ্যক্ষ পদে যোগদান করেন। ১৯৯৩ সালে চতুর্দশ বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে পটিয়া সরকারি কলেজে প্রভাষক পদে যোগদান করেন। বিভিন্ন সময়ে তিনি চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ এবং সাতকানিয়া কলেজে অধ্যাপনা করেন। উপাধ্যক্ষ হিসাবে পদায়নের পূর্বে তিনি বিশেষ ভারপ্রাপ্তকর্মকর্তা, মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে কর্মরত ছিলেন, সংযুক্ত : চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ। তিনি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত এবং কলামিষ্ট লেখক হিসাবে তার সুপরিচিতি রয়েছে। বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্রের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তিনি আলোচক হিসাবে দায়িত্ব পালন করে থাকেন। ২৯ নভেম্বর ২০২১ তারিখে তিনি উপাধ্যক্ষ হিসাবে যোগদান করেন।

Read More->

Complain/Suggest Corner

Calendar